অসহায় অবস্থায় মিস্টার বাংলাদেশ

১ বার মিষ্টার বাংলাদেশ ১৬ টি স্বর্ণ পদক ৩১ টি রোপ্য পদক ১২ টি ব্রোঞ্জ পদক ৮ টি রেকর্ড সহ অসংখ্য পুরুষ্কার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায় থেকে পাওয়া অনেক সনদপত্র, এছাড়াও সুনাম কুড়িয়েছেন দেশ বিদেশের ক্রীড়াঙ্গনে সেই সাথে উজ্জ্বল করেছেন বাংলাদেশের নাম আমরা যার কথা বলছি তিনি হলেন কুষ্টিয়া শহরের ২ নং বাহাদুর বিশ্বাস লেনের বাসিন্দা শরীর গঠন এবং ভারউত্তলনের অন্যতম ক্রীড়াবীদ রতন কুমার পাল ।

বয়সের ভারে নুইয়ে পড়েছেন, বেশ কয়েক বছর পুর্বে তার দুই পা বাকা হয়ে গেলে রাজশাহী থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা করে তিনি ভারতের বেঙ্গালর গিয়ে দুই পায়ের হাটুর কৃত্তিম জয়েন্ট করিয়ে আসেন এই অপারশেন করাতে গিয়ে তার স্ত্রীর প্রায় ২০ ভরী স্বর্ণালংকার বিক্রয় করে চিকিৎসার ব্যায় বহন করেন, তারপর দুই হাত বেকে গেছে নিজ হাতে খেতে পারেন না ভালোভাবে চলাফেরা করতে পারেন না।

লাঠি ভর দিয়ে কোন রকম চলাফেরা করেন, ছোট্ট তিন কক্ষের একটি বাড়ীর মধ্যেই কেটে যায় দিন রাত, টিভিতে সংবাদ দেখেন নিয়মিত দেশের কত টাকার তসরুপ হচ্ছে এমন বিষয় তিনি বার বার বলতে থাকেন আমি তো দেশের নাম উজ্জ্বল করেছি কেন সরকার কি আমাদের দেখে না কান্না জড়িত কন্ঠে তিনি বলেন আমার যা কিছু সহায় সম্বল ছিল তা সব শেষ এখন ছেলেটার পড়াশোনার খর‍চ আর নিজে দুবেলা দুমুঠো খেয়ে বেচে থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট আকুল আবেদন করছি তিনি যেন আমাকে আর্থীক ভাবে সহযোগীতা করেন।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও সংবাদে

মন্তব্য এর উত্তর

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম